চোখের দেখা প্রাণের কথা: মেহের আফরোজ শাওন

প্রচার তারিখ: ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার, প্রচার সময়: সন্ধ্যা ৬টা ৩৫ মিনিট।

“চোখের দেখা প্রাণের কথা” অনুষ্ঠানের প্রতি পর্বে উপস্থিত থাকেন আপন আলোয় উদ্ভাসিত একজন ব্যক্তিত্ব। যিনি শুনিয়ে থাকেন তার জীবন অভিজ্ঞতার গল্প। অনুষ্ঠানে অতিথির পছন্দের সাতটি গান প্রচারিত হয়। “চোখের দেখা প্রাণের কথা” অনুষ্ঠানের আজকের পর্বের অতিথি মেহের আফরোজ শাওন।

মেহের আফরোজ শাওন অভিনেত্রী, নৃত্য শিল্পী, সঙ্গীত শিল্পী, পরিচালক  এবং স্থপতি হিসেবে দক্ষতার ছোঁয়া রেখেছেন। হাসি, খুশি, গল্প, আড্ডা সব মিলিয়ে প্রাণবন্ত মানুষ তিনি। শোবিজে পথ চলার প্রায় তিন দশক পাড় করেছেন। পথ চলতে তেমন বাধাঁগ্রস্থ হননি। তুমুল জনপ্রিয় অভিনেত্রী বেঁছে বেঁছে কাজ করেছেন। মেহের আফরোজ শাওন নিজের জীবন, কর্ম ও অর্জন সম্পর্কে আত্মমূল্যায়ন করে বলেন, “আমি পরিবর্তনে বিশ্বাসী। সমাজের ভালর সঙ্গে নিজেকে খাপখাইয়ে নিতে সবসময় সচেষ্ঠ থাকি।”

মেহের আফরোজ শাওন সময় পেলেই বই পড়েন। শ্রোতাদের বই পড়ার অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, তার কাছে মনে হয় আমাদের বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে মুক্তিযুদ্ধের পরিপূর্ণ ইতিহাসটা আমাদের জানা উচিত। অবশ্যই আমাদের মননশীলতার জন্য আমরা উপন্যাস পড়ব, কবিতা পড়ব, গল্প পড়ব। সেগুলো আমাদের সৃষ্টিশীলতা তৈরি করবে। কিন্তু মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানার জন্য দুটি বই একদম অবশ্য পাঠ্য। একটি হুমায়ুন আহমেদের লেখা জোসনা ও জননীর গল্প। এটি আমার কাছে মনে হয় যে প্রতিটি বাংলাদেশের নাগরিকের পড়া উচিত। দ্বিতীয়টি হলো আমারে বিবেচনায় উচিতেরও উপরে। অবশ্য পাঠ্য । সেটি হলো বঙ্গবন্ধু রচিত অসমাপ্ত আত্মজীবনী। -এই দুটি বই তিনি সকল শ্রোতাকে পড়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন।

সড়ক দুর্ঘটনা কমিয়ে আনা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তিনি নিজে সরাসরি দুর্ঘটনায় পতিত না হলেও পড়ার কাছাকাছি বেশ কয়েকবারই হয়েছিলেন।  তিনি একবার স্যুটিং থেকে ফিরছিলেন। ক্লান্ত অবস্থায় গাড়ীতে আছেন। তিনি বলেন, গাড়ী চালনার ক্ষেত্রে চালককে থাকতে হবে সদা সতর্ক। সড়ক দুর্ঘটনা হচ্ছে এক মুহুর্তের ভুল। চালক যদি অসচেতন হয় তাহলে অনেক বড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। আমার নিজের জীবনেও এমনটি ঘটেছে। চালক অসতর্ক হয়েছিল, আমার সৌভাগ্য সৃষ্টিকর্তার কৃপায় আমি রক্ষা পেয়েছি।  এরকম সবার জীবনে হয় আবার এর থেকে খারাপও হয়। হাইওয়ের ক্ষেত্রে চালকের অসর্তকতা হলো খুবই বিপদজনক। দ্বিতীয়ত, শহুরে পথে দুর্ঘটনার ক্ষেত্রে শুধু চালকের দোষ নয়, এখানে পথচারী, সাধারণ জনগণ সবার সতর্কতার প্রয়োজন। তিনি বলেন, সড়ক দুর্ঘটনা কমিয়ে আনার জন্য প্রয়োজন সচেতনতা। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, নিজের কথা ভাবতে হবে, পরিবারের কথা ভাবতে হবে, ঘরের যে ছোট সন্তানটি আছে তার কথা ভাবতে হবে। যে মা আছে, যে বাবা আছে, আদরের বোনটা বা ভাইটা কিংবা বন্ধুটা -সবার কথা ভাবতে হবে। এই ভেবেই যদি আমরা সচেতন হই, নিজের জন্য না হলেও, কাছের মানুষগুলোর জন্য যদি হই, তাহলে মনে হয় একটুখানি হলেও আমরা সচেতন হতে পারব।

প্রিয় শ্রোতা, “চোখের দেখা প্রাণের কথা: মেহের আফরোজ শাওন” পর্বটি শুনতে নীচের প্লে বাটনে ক্লিক করুন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Copyright © 2020 |Traffic FM Privacy Policy|Site Edited by Deputy Director (Traffic) | Maintained By Director (Traffic) | Supervised By DDG(Programme), Bangladesh Betar | Developed By SA Web Service